ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আম পাতার ঔষধি গুনাগুণ - TrickMela.com
Friday , May 25 2018
Home / Uncategorized / ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আম পাতার ঔষধি গুনাগুণ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আম পাতার ঔষধি গুনাগুণ

আম পাতায় প্রচুর ভিটামিন, এনজাইম,
অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফ্ল্যাভোনয়েড এবং
অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান থাকে। আম
পাতায় মেঞ্জিফিরিন নামক সক্রিয় উপাদান
থাকে যার অপরিমেয় স্বাস্থ্য উপকারিতা আছে।
কচি আমের পাতা সিদ্ধ করে সেই পানি পান করা
বা পাতা গুরু করে খাওয়া যায়। আম পাতার স্বাস্থ্য
উপকারিতাগুলো সম্পর্কে জেনে নিই চলুন-
১। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণেঃ আমপাতা
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কাজে লাগে। এতে
ট্যানিনস নামক অ্যান্থোসায়ানিডিন থাকে, যা
ডায়াবেটিস নিরাময়ে খুব কার্যকরী। আমপাতা
শুকিয়ে গুঁড়ো করে রাখতে পারেন। গরম পানিতে
সেদ্ধ করে চায়ের মতো পান করতে পারেন অথবা
তাজা পাতা পানিতে ভিজিয়ে সারা রাত
রেখে দিন। সকালে এ পানি ছেঁকে নিয়ে পান
করুন। শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে ও
হাইপারগ্লাইসেমিয়া কমাতে সাহায্য করে কচি
আমপাতা।
২। উচ্চ রক্তচাপ দূর করেঃ আম পাতায়
হাইপোট্যান্সিভ উপাদান আছে, যা উচ্চ রক্তচাপ
কমতে সাহায্য করে।
৩। শ্বাসকষ্ট দূর করেঃ যারা ঠান্ডা, হাঁপানি ও
অ্যাজমা ইত্যাদি রোগে ভুগছেন, তাঁদের জন্য
আমপাতা দারুণ উপকারী। আমপাতা পানিতে
ফুটিয়ে ঠান্ডা করে মধু যুক্ত করে খেলে কাশি দূর হয়।
৪। স্ট্রেস কমায়ঃ যারা অস্থির ও উদ্বিগ্ন অনুভব করেন
তারা এর থেকে মুক্তি পেতে পান করতে পারেন আম
পাতার চা। ২/৩ কাপ আম পাতার চা পান করে দেখুন
পার্থক্য বুঝতে পারবেন। এটি আপনার স্নায়ু তন্ত্রকে
শিথিল হতে সাহায্য করবে এবং আপনি সতেজ অনুভব
করবেন।
৫। আঁচিল দূর করেঃ আঁচিল নিরাময়ে পরিপক্ক আম
পাতা পুড়িয়ে কালো করে গুঁড়া করে নিন। সামান্য
পানি মিশিয়ে পেস্টের মত তৈরি করে আঁচিলের
উপরে লাগালে আঁচিল দূর হবে। আঘাত প্রাপ্ত
স্থানে রক্ত বন্ধ করার জন্যও এই পেস্ট ব্যবহার করা যায়।

Check Also

চলে আসলো বাংলাদেশী নতুন CPC Adnetwork Website মাত্র 143 Click এ 1$ কিছুটা G&R এর মতো ।

আশাকরি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছেন। ইনসা আল্লাহ আজকে আমি আপনাদের মাজে একটা নতুন বাংলাদেশি Adnetwork …

Leave a Reply