নামাজের পর যে ব্যক্তি এই কাজটি করবে ফেরেশতারা তার জন্য দোয়া করতে থাকবে !! - TrickMela.com
Friday , November 16 2018
Home / Islamic Forum / নামাজের পর যে ব্যক্তি এই কাজটি করবে ফেরেশতারা তার জন্য দোয়া করতে থাকবে !!

নামাজের পর যে ব্যক্তি এই কাজটি করবে ফেরেশতারা তার জন্য দোয়া করতে থাকবে !!

নামাজের পর যে ব্যক্তি এই কাজটি করবে ফেরেশতারা তার জন্য দোয়া করতে থাকবে !!

নামাজ ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের একটি। ইসলাম ধর্মে নামাজকে ফরজ করা হয়েছে। সে কারণে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত (নির্দিষ্ট নামাজের নির্দিষ্ট সময়) নামাজ আদায় করে থাকেন। কিন্তু নামাজ আদায় করার পর আপনি মসজিদ থেকে সরাসরি বের হয়ে আসেন নাকি অন্য কিছু করেন?

এ প্রসঙ্গে মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি নামাজ আদায়ের পর কাউকে কষ্ট না দিয়ে অজুসহ মসজিদে অবস্থান করে, ততক্ষণ ফেরেশতারা

তার মার্জনার (ক্ষমার) জন্য এই বলে দোয়া করতে থাকে, ‘হে আল্লাহ! একে তুমি ক্ষমা করে দাও; হে আল্লাহ! এর তাওবা কবুল কর; হে আল্লাহ! এর প্রতি তুমি দয়া প্রদর্শন কর। (বুখারি ও মুসলিম)।

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, পুরুষদের পক্ষে জামায়াতে নামাজ আদায় করার সওয়াব তার ঘরে ও বাজারে নামাজ পড়ার চেয়ে পঁচিশ গুণ বেশি।

এই কারণে যে, কোনো ব্যক্তি যখন খুব ভালভাবে অজু করে নামাজের উদ্দেশ্যে মসজিদে গমন করে এবং নামাজ ছাড়া তার মনে আর কোনো উদ্দেশ্য থাকে না, তখন মসজিদে প্রবেশ না করা পর্যন্ত প্রতিটি পদক্ষেপের বিনিময়ে তার মর্যাদা বৃদ্ধি পায় এবং তার একটি গোনাহও মাফ হয়ে যায়। মসজিদে প্রবেশ করে যতক্ষণ পর্যন্ত সে নামাজের অপেক্ষায় বসে থাকে, ততক্ষণ সে নামাজের অনুরূপ ছাওয়াবই পেতে থাকে। (বুখারি ও মুসলিম)।

মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআনের ১১২ নম্বর সূরা, এর আয়াত সংখ্যা ৪টি এবং এর রূকুর সংখ্যা ১টি। আল ইখলাস সূরাটি মক্কায় অবতীর্ণ হয়েছে। এই সূরাটিকে ইসলামের শেষ পয়গম্বর মুহাম্মদ (সা:) বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে ব্যাখ্যা করেছেন। তাৎপর্যের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, এই আয়াতে আল্লাহ্‌র অস্তিত্ব ও সত্তার সবচেয়ে সুন্দর ব্যাখ্যা রয়েছে। এটি কুরআনের অন্যতম ছোট একটি সূরা হিসেবেও বিবেচিত হয়ে থাকে। এই সূরাটি কোরআনের এক-তৃতীয়াংশের সমান।

তাই আসুন জেনে নিই সূরা আল ইখলাসের অনুবাদ ও অর্থ-

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ

আরবি উচ্চারণ
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

বাংলা অনুবাদ
পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।

قُلْ هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ 112.1

আরবি উচ্চারণ
১১২.১। কুল্ হুওয়াল্লা-হু আহাদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১২.১ বল, তিনিই আল্লাহ, এক-অদ্বিতীয়।

اللَّهُ الصَّمَد112.2ُ

আরবি উচ্চারণ
১১২.২। আল্লা-হুচ্ছমাদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১২.২ আল্লাহ কারো মুখাপেক্ষী নন, সকলেই তাঁর মুখাপেক্ষী।

لَمْ يَلِدْ وَلَمْ يُولَد112.3ْ

আরবি উচ্চারণ
১১২.৩। লাম্ ইয়ালিদ্ অলাম্ ইয়ূলাদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১২.৩ তিনি কাউকে জন্ম দেননি এবং তাঁকেও জন্ম দেয়া হয়নি।

وَلَمْ يَكُنْ لَهُ كُفُوًا أَحَد112.4ٌ

আরবি উচ্চারণ
১১২.৪। অলাম্ ইয়া কুল্লাহূ কুফুওয়ান্ আহাদ্।

বাংলা অনুবাদ
১১২.৪ আর তাঁর কোন সমকক্ষও নেই।

—–ভাল লাগলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না…।

Check Also

প্রতিদিন 100-200$$ আয় করুন

আজকে আমি আপনাদের সামনে এমন একটি সাইট নিয়ে হাজির হয়েছি যা শুনলে আপনি হয়তোবা বিশ্বাস …

Leave a Reply